নরসিংদীর শীতলহ্ম্যা নদীতে বন্ধুর সাথে গোসল করতে গিয়ে স্কুল ছাত্রের করুণ মৃত্যু

কে.এইচ.নজরুল ইসলাম,নরসিংদী প্রতিনিধি: নরসিংদী জেলা পলাশ উপজেলার শীতলক্ষ্যা নদীতে বন্ধুদের সাথে গোসল করতে গিয়ে পানিতে ডুবে এক স্কুল ছাত্রের করুণ মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। রবিবার (১ মার্চ) দুপুরে ফায়ার সার্ভিসের ডুবরী দল পলাশ বাগপাড়া এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদী থেকে মিয়াদ আহম্মেদ (১১) ছাত্রের লাশ উদ্ধার করে। নিহত মিয়াদ আহম্মেদ জনতা জুটমিলের উৎপাদন বিভাগের কর্মকর্তা বদরুল আহম্মেদের ছেলে।সে জনতা আদর্শ বিদ্যানিকেতন স্কুলের ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিলেন।পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, দুপুরে মিয়াদ আহম্মেদ তার তিন বন্ধুর সাথে নদীতে গোসল করতে যায়। গোসলের এক পর্যায় মিয়াদ পানিতে ডুব দিয়ে আর উঠেনি।পরে তার বন্ধুরা মিয়াদকে খোঁজে না পেয়ে পরিবারের লোকজনকে খবর দেয় এবং পরিবারের লোকজন খোঁজাখুজির একপর্যায় মিয়াদকে না পেয়ে ফায়ার সার্ভিসকে সংবাদ দিলে ঘটনাস্থলে টঙ্গি ফায়ার সার্ভিসের একদল ডুবরী নদীতে নেমে স্কুল ছাত্র মিয়াদের লাশ উদ্ধার করে।মিয়াদের বাবা বদরুল আহম্মেদ জানান, কর্মস্থল জনতা জুট মিল থেকে কাজ করে দুপুরের খাবার খেতে বাড়ি এসে শুনি মিয়াদ নদীতে ডুবে গেছে। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় ফায়ার সার্ভিস ও থানা পুলিশকে সংবাদ দেয়া হয়। টঙ্গি ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন মাস্টার আশিকুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, নদীতে ডুবে যাওয়ার স্থানটি অনেক গভীর ছিল। তাই ডুবে হওয়ার পরও লাশটি উদ্ধারে কয়েক ঘন্টা সময় লেগে যায়। তিনি জানান, নদীর ওই স্থানটিতে ড্রেজার দিয়ে বালু তোলার কারণে এর গভীরতা বেড়ে যায়।
পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাইদুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, উদ্ধারকৃত লাশটি ময়না তদন্তের জন্য নরসিংদীর সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

মতামত দিন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More