শিরোনাম

জয়পুরহাটে স্ত্রীকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

Spread the love

পুলক সরকার জয়পুরহাট প্রতিনিধি,
১৯ জুন/১৯
জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার পাটাবুকা গ্রামে শশুর ও স্ত্রীকে বিভিন্ন কাগজে জোর করে সই-স্বাক্ষর নিয়ে নবজাতক পুত্র সন্তানসহ স্ত্রীকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
বুধবার দুপুরে জয়পুরহাট জেলা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে পাটাবুকা গ্রামের মোখলেছার রহমানের ছেলে মুকল হোসেনের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ করেন তার শশুর জয়পুরহাট সদর উপজেলার বুুলুপাড়া গ্রামের হাকিম সাখিদার।
হাকিম লিখিত অভিযোগে জানান, ২০১৭ সালের ৯ জুন তাার মেয়ে হাবিবা খাতুন কল্পনার সাথে জেলার পাঁচবিবি উপজেলার পাটাবুকা গ্রামের মোখলেছার রহমানের ছেলে মুকুল হোসেনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে মুকুল বিভিন্ন সময় তার মেয়েকে যৌতুকের জন্য চাপ দিতে থাকেন। এমনকি যৌতুকের জন্য তার মেয়ে শারীরিক ও মানষিকভাবে নির্যাতন করা হতো। এরই মধ্যে প্রায় ২ মাস আগে কল্পনা বাবার বাড়ি এসে একটি পুত্র সন্তান জন্ম দেয়। সন্তান জন্মের ২ মাস পার হলেও মুকুল তার স্ত্রী বা নবজাতককে দেখতে আসেনি। ‘ বাধ্য হয়ে ৩/৪ দিন আগে আমি, আমার স্ত্রী, আমার কন্যা কল্পনাসহ তাদের শিশু সন্তান নিয়ে আমার জামাইয়ের বাড়ীতে যাই। এ অবস্থায় জামাই মুকুল, তার বাবা,মাসহ তাদের আত্মীয়-স্বজনরা আমাদের এক ঘরে আটকে রেখে আমাদের মোবাইল ফোন কেড়ে নিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করতে থাকেন।’ বলেও অভিযোগ করেন হাকিম।
তিনি আরো বলেন, ‘ভয়-ভীতি প্রর্দশনের এক পর্যায়ে মুকুল ও তার আত্মীয়-স্বজনরা বিভিন্ন কাগজে জোর করে আমার এবং আমার মেয়ের সই-স্বাক্ষর ও টিপসহি নিয়ে নবজাতক শিশু পুত্রসহ তার মেয়েকে তার বাড়ি থেকে বের করে দেয়।’
মোহরানা পরিশোধ দেখিয়ে তালাক নামায় জোর করে তাদের সই-স্বাক্ষর ও টিপ সই নেওয়া হয়েছে বলে আশঙ্কা করেন হাকিম।
এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করা হলে অভিযোগ অস্বীকার করেন হাকিমের কল্পনার স্বামী মুকুল হোসেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *