শিরোনাম

ক্লাসের ব্ল্যাক বোর্ডে চক দিয়ে জন্মবার্ষিকী লিখে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালন কারণ দর্শানোর জন্য অধ্যক্ষকে শোকজ নোটিশ

Spread the love

মোঃ সুমন আলী খাঁন, নবীগঞ্জ ॥ হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জে ক্লাসের ব্ল্যাক বোর্ডে চক দিয়ে জন্মবার্ষিকী লিখে বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের ও জাতীয় শিশু দিবস পালন করা হয়েছে। উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের বাজার সঈদপুর ফাজিল মাদ্রাসায় জাতীয় শিশু দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী অনুষ্ঠানে সরকারী নির্দেশ অমান্য করে অবহেলা ও ত্রুটিপূর্নভাবে ক্লাসের ব্ল্যাক বোর্ডে চক দিয়ে জন্ম বার্ষিকী লিখে জাতীয় শিশু দিবস পালন করায় গতকাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ-বিন-হাসান ওই মাদ্রাসার অধ্যক্ষকে ৩ কার্য দিবসের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য শোকজ নোটিশ প্রদান করেছেন।
জানা যায়, গতকাল রোববার জাতীয় শিশু দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে সঈদপুর বাজার ফাজিল মাদ্রাসায় এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। উক্ত আলোচনা সভায় কোন ব্যানার ব্যবহার না করে ক্লাসের ব্ল্যাক বোর্ডে চক দিয়ে জন্ম বার্ষিকী লিখে সাদামাঠা ভাবে আলোচনা সভা করে শিক্ষকরা ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন। বোর্ডের চক দিয়ে লেখা আলোচনা সভার উপর অর্ধেক ডেকে সিদ্দিকিয়া ফাউন্ডেশন নামে একটি ব্যানার টানানো হয়। ছবি দুটি ফেসবুকে ভাইরাল হলে স্থানীয় এমপি ও উপজেলা প্রশাসনের দৃষ্টি পড়ে। তাৎক্ষনিকভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ-বিন হাসান ওই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মোল্লা আলী আক্কাসকে ৩ কার্য দিবসের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য শোকজ নোটিশ প্রদান করেন।
এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ-বাহুবলের সংসদ সদস্য গাজী মোঃ শাহনওয়াজ মিলাদ বলেন, এভাবে চক দিয়ে ব্ল্যাক বোর্ডে নাম লিখে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্ম বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবসকে অবহেলা অমর্যাদা ও সম্মানহানি করা হয়েছে এবং সরকারী নির্দেশকে অমান্য করা হয়েছে। এর সঠিক তদন্ত করে প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে হবে। এ ব্যাপারে সঈদপুর বাজার ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মোল্লা আলী আক্কাস বলেন, আমাদের ব্যানারে বানানের ভুল ছিল। তাই ব্যানারটি টানানো হয়নি। যেটা হয়েছে এটি অনিচ্ছাকৃত একটি ভুল হয়ে গেছে তার জন্য ক্ষমা চাচ্ছি। জন্মবার্ষিকী লেখার উপর সিদ্দিকীয় ফাউন্ডেশনের ব্যানার টানানো হয়েছে কেন এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন- এটা আমরা করি নাই ছাত্ররা করেছে, আমি লক্ষ্য করি নাই। মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির সভাপতি আহমদ আলী বলেন, আমি অসুস্থ্য থাকায় মাদ্রাসায় যেতে পারিনি। কি হয়েছে তা আমি জানিনা। শিক্ষকরা অনুষ্ঠান পালন করেছেন এটা জানি, আর কিছু বলতে পারবো না। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ-বিন হাসান বলেন, বিষয়টি আমরা ফেসবুকের মাধ্যমে জেনে অধ্যক্ষকে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করেছি। সঠিক সময়ে কারণ না দর্শাতে পারলে সাময়িক বরখাস্ত করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *