শিরোনাম

নড়াইলে সুলতান মেলায় এবার ইউএসএ, জিম্বাবুয়ে, ভারতসহ ১১টি দেশের বিশাল বিশাল চিত্রকর্ম!

Spread the love
উজ্জ্বল রায় নড়াইল জেলা প্রতিনিধিঃ
নড়াইলে সুলতান মেলায় এবার ইউএসএ, জিম্বাবুয়ে, ভারতসহ ১১টি দেশের  চিত্রকর্ম। আন্তর্জাতিক শিল্পী আর শিল্পে মুখর সুলতান মেলা বিশ্ব বরেণ্য চিত্রশিল্পী এসএম সুলতানের ৯৫তম জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে।
উজ্জ্বল রায় নড়াইল জেলা প্রতিনিধি জানান,সুলতান মেলার ৩য় দিনে অনুষ্ঠিত হয়েছে সবচেয়ে বড় আয়োজন আন্তর্জাতিক চারুকলা প্রদর্শনী এবং আন্তর্জাতিক আর্ট ক্যাম্প। এই চিত্র প্রদর্শনী চলবে মেলার সমাপনি দিন আগামী ২৭ জানুয়ারি পর্যন্ত। বাংলাদেশ, ইউএসএ, জিম্বাবুয়ে, ভারতসহ মোট ১১টি দেশের ১৫০টি  চিত্রকর্ম স্থান পেয়েছে এই প্রদর্শনীতে।  এই প্রদর্শনী ও আন্তর্জাতিক আর্ট ক্যাম্পের উদ্বোধন করেন। সকালেই জিম্বাবুয়ে,ভারত ও বাংলাদেশীদের মোট ২০ জন নবীন-প্রবীণ শিল্পীদের সম্মিলনে মুখর হয়ে ওঠে মনোরম সুলতান মঞ্চ। সব মিলিয়ে গোটা সুলতান মঞ্চ প্রাঙ্গণে এখন বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ।
আন্তর্জাতিক চারুকলা প্রদর্শনী অনুষ্ঠানে বেস্ট অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয় সাতজন শিল্পীকে। তাঁরা হলেন বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন চিত্র শিল্পী মাহফুজা বিউটি, ইলিয়াস হোসেন,নবরাজ রায়,শারমিলা কাদের এবং ভারতের শিল্পী শ্যামলী কর্মকার,সুপ্তি রায় ও রুপালি রায়।  এছাড়া জিম্বাবুয়ে থেকে আগত চিত্রশিল্পী হাজভিনাই ব্রিজেট মুতাসাকে বিশেষ সুলতান সম্মাননা প্রদাণ করা হয়।
এটা দ্বিতীয়বারের মতো সুলতান মেলার আন্তর্জাতিক চারুকলা প্রদর্শনী। সুলতান মঞ্চের পাশে ভিক্টোরিয়া কলেজের দর্শন বিভাগের হলরুমে চলছে এই প্রদর্শনী। আন্তর্জাতিক চারুকলা দেখতে স্থানীয় দর্শকদের আগ্রহের শেষ নেই। দর্শন হলের দুটি রুমেজুড়ে রয়েছে নানা ধরনের চিত্রকর্ম। গ্যালারিতে স্থান পেয়েছে সদ্য আমেরিকা থেকে একক চিত্র প্রদর্শণী শেষ করে আসা শিল্পী মাহফুজা বিউটির আঁকা ‘ইম্পিডিমেন্ট’’ ছবির রেপ্লিকা। শিল্পী মাহফুজা বিউটির ছবির বিশেষত্ব হল নারী ও ফুল।‘ইম্পিডিমেন্ট’ ছবিতে ফুলের ওপর বৃষ্টির ছোঁয়া অর্থ্যাৎ এটা দ্বারা সমাজে ফুলের মতো নারীর বাধা-বিপত্তিকে বুঝিয়েছেন। এছাড়া দেয়ালজুড়ে দেশি-বিদেশি সব চিত্র শিল্পীদের আঁকা ছবি দেখছেন নড়াইলের দর্শণার্থীরা। মুগ্ধ হয়ে ছবির পর ছবি দেখে চলেছেন নানা বয়সের মানুষ। একইসঙ্গে সুলতান মেলায় আন্তর্জাতিক শিল্পীদের আর্ট ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়। ভারত,জিম্বাবুয়ে,নেপাল এবং বাংলাদেশের ২০জন চিত্রশিল্পী নিয়ে আন্তর্জাতিক এ আর্ট ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়। আর্টক্যাম্প অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী শিল্পী মাহফুজা বিউটি বলেন,‘বিশ্ব বরেণ্য চিত্রশিল্পী এসএম সুলতানের নাম আজ বিশ্ববুকে বহুল প্রচারিত ও প্রতিষ্ঠিত। সুলতান বাংলার খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষ প্রত্যহ রোদ-বৃষ্টিতে কষ্ট করা কৃষক-শ্রমিকের যাপিতজীবনের কঠিন বাস্তবতার প্রতিচ্ছবি তিনি তাঁর শিল্পের নজর দিয়ে সৃজনশীলতার অপার রঙে মূর্ত-বিমূতের্ক ক্যানভাসের বুকে দক্ষতার সঙ্গে নিমার্ণ করেছেন। আমি এমন মহান চিত্রশিল্পীর জন্মভূমিতে আসতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। সুলতানকে নড়াইলের মানুষ দেবতাতুল্য মনে করে বলে এখানে এসে আমার বিশ্বাস হয়েছে ।’ ভারত থেকে আসা চিত্রশিল্পী রাজশ্রী চট্টপাধ্যায় ও রুপালি রায় জানান, ‘এস এম সুলতানের জন্মভূমিতে আসতে পেরে আমরা ধন্য হলাম। শিল্পীর নামে এত বড় উৎসবে ছবি প্রদর্শনী করতে পারাটা ভাগ্যের ব্যাপার। তাঁর শিল্পকর্ম আমাদের উজ্জ্বীবিত করে মানুষ ও তার কঠিন বাস্তবতা নিয়ে ভাবতে শেখায়।’ সুলতান মেলার আন্তর্জাতিক চারুকলা প্রদর্শনী ও আর্ট ক্যাম্পের সদস্য সচীব চিত্রশিল্পী সমির কুমার বৈরাগী জানান,‘ এতগুলো দেশী-বিদেশী চিত্রকরের অংশগ্রহণে ঢাকার বাইরে বড় পরিসরে আন্তর্জাতিক চারুকলা প্রদর্শনী বিস্ময়কর। এটা আমাদের তথা নড়াইলবাসীকে গর্বিত করেছে।’বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) থেকে নড়াইলে শুরু হয়েছে ১২ দিনব্যাপী সুলতান মেলা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *