আজ বিশ্ব রেডিও দিবস

Spread the love

বিশ্বে প্রথম রেডিও আবিষ্কারই হয়েছিল ১৮৯৮ সালে। রেডিওকে স্যালুট জানাতে ২০১১ সালে ১৩ ফেব্রুয়ারিকে বিশ্ব রেডিও দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয় ইউনেস্কো। এই দিনটিকে বাছা হয়েছিল কারণ, ১৯৪৬ সালে এই দিনেই রাষ্ট্রপুঞ্জ রেডিও প্রথম আন্তর্জাতিক সম্প্রচার করেছিল। স্পেনের রেডিও অ্যাকাডেমি ২০১০ সালে প্রথম ১৩ ফেব্রুয়ারিকে বিশ্ব রেডিও দিবস হিসেবে উদযাপন করার পরিকল্পনা করেছিল। তারপর ২০১১ সালে ইউনেস্কো ১৩ ফেব্রুয়ারিকে বিশ্ব রেডিও দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয়।

যুক্তির উৎকর্ষতায় যন্ত্রটি আজ হারিয়ে যেতে বসেছে। অথচ এক সময় দেশ-বিদেশের খবর জানার একমাত্র মাধ্যমই ছিল রেডিও। কারও বাড়িতে একটি রেডিও থাকলে তার আলাদা খাতির করা হতো। অনেকে আবার বিয়ের সময় শ্বশুরবাড়ি থেকেও যৌতুক হিসেবে রেডিও নিতো। সে সময় কারো বাড়িতে একটি রেডিও থাকলে গ্রামের মানুষ দল বেঁধে জড়ো হতো খবর শুনতে। তবে কালের বিবর্তনে এখন রেডিও শোনার মানুষের সংখ্যা একেবারেই কমে গেছে। তবে এর ব্যতিক্রম হিসেবে এখনো কিছু মানুষ আছেন যারা খবর শুনতে রেডিও’র উপর নির্ভশীল। তাদেরই একজন বাগেরহাটের ডা. হরিপদ দত্ত জানান, ‘১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় চট্টগ্রাম কালুরঘাট বেতার থেকে সরাসরি সম্প্রচার করা খবর শোনার একমাত্র মাধ্যমেই ছিল রেডিও। যে খবর শুনে লাখ লাখ বাঙ্গালি মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণে উজ্জ্বীবিত হয়েছিল। এ ছাড়া তৎকালীন রেসকোর্স ময়দানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণও সরাসরি রেডিওতে শুনে লাখো বাঙ্গালি মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিল।’

বিশ্ব বেতার দিবস-২০২০ উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ বেতার দিনব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার করবে। বাংলাদেশ বেতার আজকের কর্মসূচীর বিস্তারিত তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে নোটিশ আকারে প্রকাশ করেছে। ডাউনলোড লিংকঃ shorturl.at/lsEGP

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *