হামলার শিকার সেই মুর্শেদা বহিষ্কার

সোনিয়া আক্তার রিপোর্টার ঃ
গত ১০ই এপ্রিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুফিয়া কামাল হলের ঘটনায় হল শাখা ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি মুর্শেদা খানমসহ ২৪জনকে বহিষ্কার করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। সোমবার সন্ধ্যায় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও এসএম জাকির হোসাইন স্বাক্ষরিত এক নোটিশে এ তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়, ১০ই এপ্রির দিবাগত রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম সুফিয়া কামাল হলে অনাকাঙ্খিত ঘটনার সঙ্গে জড়িতের বাংলাদেশ ছাত্রলীগ থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। বহিষ্কৃতদের মধ্যে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাহিত্য সম্পাদক খালেদা হোসেন মুনও রয়েছেন। বাকিরা হলেন- সুফিয়া কামাল হল শাখার সহ-সভাপতি আতিকা হক স্বর্ণা, মিরা, সাংগঠনিক সম্পাদক জান্নাতী আক্তার সুমি, সহ-সম্পাদক শ্রাবণী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শারমিন আক্তার, উপ-তথ্য গবেষণা সম্পাদক (চারুকলা) আশা, নাট্যকলা বিভাগের লিজা, মিথিলা নুসরাত চৈতী, সঙ্গীত বিভাগের সোনম সীথি, চারুকলার অনুষদের সুদিপ্তা ম-ল, অনামিকা দাস, সঙ্গীত বিভাগের প্রিয়াংকা দে, প্রভা, নৃবিজ্ঞান বিভাগের শারমিন সুলতানা, উর্দু বিভাগের মিতু, ভূ-তত্ত্ব বিভাগের শিলা, জাকিয়া, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের মনিরা, রুমা, শান্তি ও সংঘর্ষ বিভাগের জুঁই, বাংলা বিভাগের তানজিলা, সমাজ কল্যান বিভাগের তাজ।
উল্লেখ্য, গত ১০ই এপ্রিল দিবাগত রাতে কোটা সংস্কার আন্দোলনকে কেন্দ্র করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুফিয়া কামাল হলে সাধারণ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে হল শাখার ছাত্রলীগ সভাপতি ইশরাত জাহান ইশা ও তার অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় বহিষ্কৃত সহ-সভাপতি মুর্শেদা খানম ইশা কতৃক হামলার শিকার হওয়ার অভিযোগ ওঠে। ক্ষণিক সময়ের মধ্যে বিষয়টি চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে সাধারণ শিক্ষার্থীরা হল থেকে বেরিয়ে এসে ইশাকে ঘিরে ধরে। এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগ একসঙ্গে ইশাকে বহিষ্কার করা হয়। পরে তার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয়। এ ঘটনার দুইদিন পরই মুর্শেদা খানমসহ অন্য নেত্রীদের স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।
মতামত দিন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More