সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারের পান্ডারখালে সেতু না থাকায় ভাসমান সেতুর উদ্যোগ এলাকাবাসীর

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :
সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার পান্ডার ইউনিয়নের পান্ডার খালে উত্তর ও দক্ষিণ পাড়ে গত ৫০ বছরেও একটি সেতু নির্মিত না হওয়াতে চরম র্দূভাগে আছেন দুই পাড়ের কয়েক হাজান মানুষ। এখানে সেতুটি নির্মিত না হওয়ায় সাধারন মানুষজনের চলাচলে যেন ভোগান্তির শেষ নেই দুই পাড়ের অন্তত দশটি গ্রামের বেশ কয়েক হাজার মানুষজনের। দীর্ঘ ভোগান্তির পরে তারা চাঁদা কালেকশন করে নিজেদের অর্থায়নে এবার ভাসমান সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছেন সর্বস্তরের এলাকাবাসী।
বুধবার দুপুরে সেতু নির্মাণের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট এলাকা পরিদর্শন ও সার্ভে করেছেন যশোরের একটি প্রকৌশলী টিম। পরিদর্শনের পূর্বে এলাকাবাসীর এক মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেন, ‘পান্ডার গাঁও গ্রামের উত্তর ও দক্ষিণ পাড়ের বাসিন্দারা দীর্ঘদিন ধরে দাবী জানিয়ে এসেছিলেন পান্ডার খালে একটি সেতু নির্মাণের। এখানে সেতু না থাকায় পান্ডারগাও ইউনিয়নের বাহাদুর পুর, পান্ডারগাও এবং মানিকপুর, চন্ডিপুর, লামাগাঁও, ইদনপুর, মঙ্গলপুরসহ দুই পাড়ের অন্তত দশটি গ্রামের মানুষের চলাচলে ভোগান্তি ছিল চরমে। স্কুল কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা প্রতিনিয়ত জীবনের ঝুঁকি নিয়ে হাত নৌকায় নদী (পান্ডার খাল) পারাপার হতে হয়। সরকারি অনুদানে কোনো সেতু নির্মিত না হওয়ায় এখন এলাকাবাসীর উদ্যোগে ভাসমান সেতু নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এতে অন্তত ৬০-৭০ লাখ টাকা ব্যয় হবে বলেন জানান বক্তারা। ‘
এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ভাসমান সেতু বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি ও শিক্ষক এনামুল হক, শিক্ষক আক্তার হোসেন, আলী হোসেন, মাস্টার মুজাহিদ আলী, ব্যবসায়ী আলী হোসেন, বাবুল মালাকার, সামসুদ্দিন আহমদ, আব্দুল খালেক, আব্দুল হক প্রমুখ।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More