পঞ্চগড়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বাড়িঘর ভাংচুর মারপিট ও লুটপাট

মনজু হোসেন, পঞ্চগড় প্রতিনিধি: পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলার ৭নং দেন না দেবনা গর ইউনিয়নের পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বাড়িঘর ভাংচুর মারপিট ওলুটপাটের, শিকার হন আব্দুস ছামাদ এর পরিবার। সরজমিনে গিয়ে জানা যায় যে গত ২৩/০৬/২০১৯ ইং তারিখে ৭নং দেবনাগর ইউনিয়নের লতিবগছ গ্রামের মোঃ আব্দুল ছামাদ, ওতার পরিবার রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় অনুমানিক রাত,১টা সময় প্রায় ১৫ জন ডাকাত ধারালো ও দেশীয় অস্ত্র সহ বাড়িতে প্রবেশ করে তাদের উপরে হামলা চালায় ও আব্দুল ছামাদের মা কে মোছাঃ তসলিমা বেগম(৫৫) কে ঘর থেকে বের করে গাছের সাথে বেঁধে রাখে তারপরে একে একে বাড়ির অন্যান্য সদস্যদের কে ঘর থেকে বের করে বাড়ির আঙ্গিনায় গাছের সাথে বেঁধে রাখে ও মুখে কসটেপ পেচিয়ে দেয় তাদেরকে বিভিন্নভাবে শারীরিক নির্যাতন করে ডাকাত দলের হাত থেকে রেহাই পায়নি (১০)বছরের আছমা আক্তার এনবি নিউজ৭১কে জানান যে আমি দাদির সাথে ঘুমিয়ে ছিলাম হঠাৎ দেখি দাদি পাশে নেই দাদিকে ডাকতে থাকলে কোন সাড়াশব্দ পায় নি তখন আমার অনেক ভয় লাগে তখন কে জানি বাইরে থেকে ঘরের ভিতরে প্রবেশ করে আমার মুখ ও হাত পা টিপে ধরে বাইরে নিয়ে আসে আমি কান্নাকাটি করতে থাকলে আমাকে মারে মুখে টেপ পেচিয়ে দেয় তখন আমি আর কিছু বলতে পারি না আব্দুল ছামাদ এনবি নিউজ৭১কে জানান যে আমার বাড়ি থেকে ডাকাত দল নগদ এক লক্ষ ৫০ হাজার টাকা ১ ভরি স্বর্ণ ৫ মরিচ ১০মণ বাদাম ও ৫ মণ ধান সহ বাড়ির দামী দামী কাপড় চোপড় সবকিছুই লুটপাট করে নিয়ে যায়। আরো জানায় তিনি ডাকাত দল কে চিনতে পেরেছেন যাদের কে চিনতে পারছেন তারা হল।১ জিয়ারুল হক ২ আজারুল ইসলাম ৩ জিলানী ৪ মনসুর আলী ৫ আব্দুল করিম ৬ আজগর আলী সর্ব সং পশ্চিম দলুয়া, দেবনাগর তেতুলিয়া। বাকিদের মুখে কালো কাপড় পেচানো থাকায় চেনা যায়নি তারপরে এলাকাবাসী ঘরে থাকা (১) বছরের ঘুমন্ত শিশুর কান্নায় আওয়াজ পেলে ছুটে আসে এবং তাদেরকে উদ্ধার করে মাইক্রোবাসযোগে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতাল ভর্তি করে তারা এখনো চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *