নড়াইলে নতুন প্রাইভেট কার চালাতে গিয়ে ইউপির চেয়ারম্যান সুইট সহ ২জন নিহত

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল থেকেঃ নিজের নতুন ক্রয় করা প্রাইভেট কার চালাতে গিয়ে নড়াইলের কালিয়া  উপজেলার খাশিয়াল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান খান রাসেল সুইট (৫২) ও তাঁর সঙ্গী বড়দিয়া ইউনাইটেড ডিগ্রি মহাবিদ্যালয়ের পিওন শওকত সরদার (৫৭) সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। বুধবার রাত  সাড়ে ১০টার দিকে বড়দিয়া-নড়াগাতি সড়কের সীবানন্দপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় গাড়ির ভেতরে থাকা স্থানীয় একটি মাদরাসার শিক্ষক মো.অলিউল্লাহ প্রাণে বেঁচে যান। সুইট খান মৃত খান আব্দুল হাইয়ের ছেলে এবং কালিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান খান শামীমুর রহমানের ছোট ভাই। সুইট খানের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।
প্রত্যক্ষদর্শী ইদ্রিস মোল্লা জানান, চেয়ারম্যান খান রাসেল সুইট বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) রাত ১০টার দিকে নিজের নতুন প্রাইভেট কার চালিয়ে সীবানন্দপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মোড়ে এসে থামেন। তিনি গাড়ি ঘুরিয়ে বড়দিয়ার দিকে ফিরে যাবার সময় রাস্তার ওপর কা্ঁদা থাকায় গাড়ির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পাশের খাদে পড়ে যান। খাদে প্রচুর পানি থাকায় গাড়ি তলিয়ে যায়। গাড়িতে থাকা অলিউল্লাহ হুজুর কোন রকমে বের হয়ে আসতে পারলেও খান রাসেল সুইট ও শওকত সরদার বের হতে পারেননি। তিনি বলেন, রাস্তার পাশের একটি সজিনা গাছ ভেঙ্গে গাড়িটি পানিতে পড়ে। গ্রামের লোকজন পানিতে নেমে চেয়ারম্যান ও কলেজের পিওন শওকত সরদার এর মৃত দেহ উদ্ধার করে। নড়াগাতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রোকসানা খাতুন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহত চেয়ারম্যানের ভাই কালিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান খান শামীমুর রহমানে কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। জানতে চাইলে নিহতের ভাই খান শামীমুর রহমান বলেন, সুইট বিবাহিত। তাঁর স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বাদ জোহর বড়দিয়া কলেজ মাঠে জানাজা শেষে তাঁকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে। তিনি আরও বলেন, ৭ সেপ্টেম্বর ঢাকা থেকে নতুন গাড়ি কিনে এনেছিল।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More