নরসিংদীতে ব্যবসায়ীকে ১০ টুকরা করে  হত্যায়, ৬ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

কে.এইচ.নজরুল ইসলাম,নরসিংদীঃ  নরসিংদীতে চাঞ্চল্যকর ব্যবসায়ী গোলাপ হোসেন (৩০)কে ১০ টুকরা করে হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন মহামান্য আদালত।একই সাথে প্রত্যেক আসামিকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরো এক বছরের বিনাশ্রম কারাদ- দেওয়া হয়েছে।
সোমবার (১৬)এপ্রিল)দুপুরে নরসিংদী অতিরিক্ত জেলা ও দায়রাজজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক এ কে এম মোজাম্মেল হক চৌধুরী এ আদেশ দেন। এছাড়া অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় মোস্তাফিজুর নামে ১ জনকে খালাস দেওয়া হয়েছে।সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলো, নরসিংদী সদর উপজেলার মেহের পাড়া ইউনিয়ন কুরের পাড় গ্রামের টকি মাহমুদের ছেলে আনোয়ার হোসেন,আব্দুল আউয়ালের ছেলে মোশারফ হোসেন,ওমর আলীর ছেলে ফিরোজ মিয়া, আব্দুল আউয়ালের ছেলে জুলহাস মিয়া, আমজাত আলীর ছেলে আকবর আলী ও আ. গনি মিয়ার ছেলে সুন্দর আলী।আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০০৩ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি পাচদোনা হইতে ঔষধ নিয়ে নিজ বাড়িতে যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয় গোলাপ হোসেন (৩০)। বহু খোঁজাখুঁজি করেও তার কোন সন্দান পাওয়া যায়নি।নিখোঁজের ৩দিন পর পাঁদোনা ব্রক্ষপুত্র নদীর তীরে এক ব্যক্তির কাটা হাতের একটি অংশ দেখতে পায় স্থানীয়রা।এর পাশে কাদা মাটিতে পুঁতে রাখা অবস্থায় লাশের কিছু অংশ দেখা যায়।সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত লাশের মাথাসহ ১০ টি টুকরা উদ্ধার করে।পরে নিহত গোলাপের বাড়ির লোকজন তার লাশ শনাক্ত করে।এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই মেহেরপাড়া ইউপি সদস্য মোস্তফা হোসেন বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় ১৫ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন।দীর্ঘ তদন্ত শেষে পুলিশ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।পরে সাক্ষ্য প্রমাণসহ উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত সোমবার রায় দেন।রাষ্ট্রপক্ষের কৌশুলী অ্যাড. অলিউল্লাহ রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে বলেন, ১৫ জনের সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালত এ রায় দেন।

মতামত দিন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More