দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে হলে দীর্ঘ মেয়াদী সরকার প্রয়োজন-এমপি ডা. ইউনুস আলী

আলমগীর হোসেন, গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি:
গাইবান্ধা-৩ পলাশবাড়ী-সাদুল্লাপুর নির্বাচনী এলাকা পলাশবাড়ী উপজেলার
হোসেনপুর ও কিশোরগাড়ী ইউনিয়নের সড়ক পাকাকরণ, অন্যান্য উন্নয়নমূলক বিভিন্ন
কাজের ভিত্তিপ্রস্তর কাজের উদ্বোধণ, স্কুল-কলেজ পরিদর্শণ ও আলোচনা সভায়
যোগ দেন ডা. মো. ইউনুস আলী সরকার এমপি।

বুধবার সকাল থেকে দিনভর অনুষ্ঠিত অসংখ্য পয়েন্টে আলোচনা সভায় সাংসদ ডা.
মো. ইউনুস আলী সরকার প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে বলেন প্রকৃতির নৌকাকে ঈর্ষা
ও জয়বাংলা বলতে যারা দ্বিধা করেন তারা মূলতঃ প্রকৃত দেশপ্রেমিক নন। তিনি
আরো বলেন দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে হলে দীর্ঘ মেয়াদী সরকার প্রয়োজন।
কেবল স্বাধীনতার দলই পারে দেশের উন্নয়ন কাজ এগিয়ে নিতে। বাংলাদেশের
ঈর্ষান্বিত উন্নয়নের ধারা আজ গোটা বিশ্বেই স্বীকৃত ও সমাদৃত।

উন্নয়নের রূপকার জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী তথা এ ধারা
অপ্রতিরোধ্য রাখতে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকার কোন
বিকল্প নেই।

ইউনিয়ন দু’টির অগ্রাধিকার জনদাবী সমূহ বাস্তবায়নে নানা অবকাঠামো
উদ্বোধণের পাশাপাশি এলাকার চিহিৃত পয়েন্ট সমূহে মূলতঃ তিনি নির্বাচনী
গণসংযোগ কালে ইউপি-ওয়ার্ডের দলীয় নেতাকর্মি ছাড়াও সর্বস্তরের জনসাধারণের
সাথে কুশল ও মতবিনিময়সহ আলোচনা সভায় অংশ নেন।

এর আগে এমপি উপজেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের আয়োজনে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয়
দিবস উপলক্ষে এস.এম পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ন্যাশনাল সার্ভিস
কর্মসূচির প্রশিক্ষণার্থীদের অংশগ্রহণে বিনা মূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয়
ও স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির উদ্বোধণ করেন। এমপি বেকার সমস্যা সমাধানে
সরকারের বিভিন্ন দিক-নির্দেশনা তুলে ধরেন।

এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো.
আরিফ হোসেন, উপজেলা প্রকৌশলী তাহাজ্জদ হোসেন, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা তাজুল
ইসলাম, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শাহীনুর আলম, আওয়ামী লীগ সভাপতি আবু
বক্কর প্রধান, সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ শামিকুল ইসলাম সরকার লিপন, যুগ্ম
সাধারণ সম্পাদক আজাদুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জেলা পরিষদ সদস্য
জাহাঙ্গীর আলম ভোটবাবু, আ’লীগ নেতা হাবিবুর রহমান লাভলু, নির্মল মিত্র ও
হোসেনপুর ইউপি চেয়ারম্যান তৌফিকুল আমিন মন্ডল টিটু ছাড়াও সহযোগি এবং
ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন সমূহের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ তাঁর সাথে ছিলেন।

মতামত দিন

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More