1. rimonrajvar@gmail.com : সম্পাদক : রিমন রাজভর
  2. mrjshantobd@gmail.com : এম.আর.জে শান্ত : এম.আর.জে শান্ত বিনোদন প্রতিবেদক
  3. admin@nbnews71.com : এনবিনিউজ একাত্তর ডটকম :
  4. rupom_diu@yahoo.com : Rupom Ahmed : Rupom Ahmed
জয়পুরহাট পৌরসভার সীমানা বর্ধিত করে পল্লী এলাকাকে সংযুক্ত করার প্রতিবাদ | এনবি নিউজ ৭১
বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০১:৫৩ অপরাহ্ন

জয়পুরহাট পৌরসভার সীমানা বর্ধিত করে পল্লী এলাকাকে সংযুক্ত করার প্রতিবাদ

Reporter Name
  • প্রকাশিত : সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৬৯ জন দেখেছেন।
পুলক সরকার, জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃ
২১ সেপ্টেম্বর/২০
জয়পুরহাট পৌরসভার সীমানা বর্ধিত করে ৩টি ইউনিয়নের পল্লী এলাকাকে পৌরসভায় সংযুক্তকরনের প্রকাশিত গেজেট বাতিলের জন্য সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জয়পুরহাট জেলা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জয়পুরহাট পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি আজম আলী।
এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- জয়পুরহাট পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মাহমুদ হোসেন হিমু, আওয়ামীলীগ নেতা নিখিল চন্দ্র মন্ডল, সাজ্জাত হোসেন সবুজ, ফারুখ হোসেন, কৃষকলীগ নেতা জালাল সরকার, হাসান আলী, ছাত্র নেতা সামছুল আলম সুমন, রাশেদুল ইসলাম রাসেল, তারাকুল ইসলাম প্রমূখ।
লিখিত অভিযোগে জানা যায়,  গত ০২ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত বাংলাদেশ গেজেটে জয়পুরহাট পৌরসভার সীমানা বর্ধিত করে সদর উপজেলার ২নং দোগাছি ইউনিয়নের বুজরুক ভারুনিয়া, ৫নং পুরানাপৈল ইউনিয়নের গোপিনাথপুর এবং ৭নং বম্বু ইউনিয়নের বম্বু ও হানাইল বম্বু মৌজাকে জয়পুরহাট পৌর এলাকার শহর এলাকা ঘোষনা করা হয়। স্থানীয় সরকার, পল্লী
উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ পৌর-১ শাখা থেকে এ গেজেট প্রকাশিত হয়। জয়পুরহাট পৌরসভা কর্তৃপক্ষ ঐ সমস্ত পল্লী এলাকাকে শহর এলাকা ঘোষনা করার অভিপ্রায় ব্যক্ত করায় তা গেজেট আকারে প্রকাশ করা হয় বলে অভিযোগ করা হয়।
লিখিত অভিযোগে আজম আলী আরো জানান, গত ২০১৫ সালের ৩১ডিসেম্বর জয়পুরহাট পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় এবং দোগাছি, পুরানাপৈল ও বম্বু ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় গত ২০১৬ সালের ৩১ মার্চ। জয়পুরহাট পৌরসভা নির্বাচনের সময় যখন সন্নিকটে তখন হঠাৎ করে অতি সংগোপনে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যানদের সাথে যোগসাজসে সীমানা বর্ধিত করার পাঁয়তারা করে সঠিক সময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠান বাধাগ্রস্থ করতে এই অপচেষ্ঠা করা হচ্ছে। এছাড়া সংশ্লিষ্ট ওই ৩টি ইউনিয়নে যাতে সঠিক সময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত না হয় সেই প্রক্রিয়া চলছে বলেও অভিযোগ করা হয়। এতে করে জয়পুরহাট পৌরসভাসহ ওই তিনটি ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যরা মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বিনা ভোটে নির্বাচিত হয়ে ক্ষমতায় থাকার পরিকল্পনা করছেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি।
ওই গেজেটে যে সব পল্লী এলাকাকে শহর এলাকা ঘোষণা করা করা হয়েছে ওই সব এলাকার শতভাগ ব্যাক্তিই কৃষি পেশার সাথে যুক্ত এবং শতকরা আশিভাগ ভূমি কৃষি প্রকৃতির এবং কৃষি পেশায় জড়িত। শহর এলাকা ঘোষণা সংক্রান্ত বিষয়ে সংশ্লিষ্ঠ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ জড়িত  বলে  তারা নিজেদের স্বার্থে এই গেজেট বাতিলের আবেদন বা আপত্তি করবেন না। তাই যথা সময়ে নির্বাচনের ব্যবস্থা করা, কৃষি জমিতে চাষাবাদ অব্যাহত রাখা, পল্লী জনসাধারনকে অযথা অতিরিক্ত পৌর করের হাত থেকে রক্ষার জন্য জয়পুরহাট পৌর সীমানা বর্ধিতকরনের যে প্রকাশিত গেজেট প্রকাশিত হয়েছে বাতিল করার জন্য সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত নেতারা সরকারের কাছে দাবী করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর..
© All rights reserved © 2020 nbnews71.com
Theme Customized BY LatestNews