গোবিন্দগঞ্জে কোচাশহর ইউনিয়নের চাঁদপাড়া বাজারের খাস জমি দখল করে পাকা স্থাপনা নির্মান

এনবি নিউজ একাত্তরঃ

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার জগন্নাথ পুর মৌজা চাঁদপাড়া হাট-বাজারের অবৈধ ভাবে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে পাকা বিল্ডিং নির্মাণ করছেন ফয়জুল ইসলাম গংরা। সরেজমিনে বাজারের কাচামাল ব্যবসায়ী এবং এলাকাবাসী সুত্রে জানাযায়, ফয়জুল ইসলাম চাঁদপাড়া হাট-বাজারের দোকানপাট সুকৌশলে ভেঙে দিয়ে সেখানে পাকা ইটের বিল্ডিং নির্মাণ করছেন ।কোচাশহর ইউনিয়নের জগন্নাথপুর মৌজায় চাঁদপাড়া হাট ও বাজার এবং ওয়াকফ স্টেট জমিনে ফয়জুল ইসলাম গোবিন্দগঞ্জ সিনিয়র জজ আদালত মামলা নং ১৮ /২০২১ দায়ের করেন । মামলায় জেলা প্রশাসক সহ আটজনকে বিবাদী করা হয় । উক্ত মামলায় সি এস খতিয়ান ৬৪০ এর জমিতে কোন প্রকার স্থাপনা নির্মাণ না করার জন্য স্থিতি বজায় রাখতে বাদী ও বিবাদী গনকে নির্দেশনা জারি করেন। কিন্তু কোর্টের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মিজানুর রহমান এর পুত্র ফয়জুল ইসলাম গংরা সরকারী মামলার বাদী নিজেই সাবেক দাগ ৫৬৭,হাল দাগ ৬৫এ পাকা মার্কেট নির্মাণ করায় জনমনে ব্যাপক অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে । এ বিষয়ে কাচামাল ব্যবসায়ী পজিশন দখল মালিক এনামুল, আফাজ,আইনুল,তোতা,বাদশা,মোজা,মোকলেছ,সরফরাজ,মাহতাব,আজাহার,আমরুল,মিজানুর,রেজ্জাকুল,আফজাল,মিলকুল,জহুরুল,পুটু বলেন আমরা আমাদের জন্মের পর থেকে এ বাজার দেখে আসছি আমাদের জীবন জীবিকা এই হাট আমরা বস্তি দোকান করে আমাদের সংসার চালাই কিন্তু কিছু ক্ষতাশীল ব্যাক্তি আমাদের দোকান ভেঙ্গে দিয়ে এবং সরকার নির্মিত বাজারের পাকা রাস্তা নষ্ট করে বাজারের জায়গা দখল করার পায়তারা করছে। তারা প্রশাসনকে এই বাজারের জায়গা দখল মুক্ত করার জন্য এবং তাদের জীবন জীবিকার পথ বন্ধ না করার জন্য বিশেষ ভাবে অনুরোধ জানান।এ ব্যাপারে মুঠোফোনে ফয়জুল ইসলামের নিকট জানতে চাইলে বলেন,উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও অন্যান্য কর্তৃপক্ষের মধ্যস্থতায় তিনি মার্কেট নির্মাণ করছেন। আপনার কাছে সহকারী কমিশনার (ভূমি) মহাদয়ের বিল্ডিং নির্মানের কোন নির্দেশনা আছে কিনা জিজ্ঞাসা করলে সে জানায়, আমার কাছে এসিল্যান্ড মহাদয়ের কোন নির্দেশনা নাই। আদালতে মামলার নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, মামলা প্রত্যাহার করে নেব এখানে উল্লেখ্য যে, হাটের জায়গায় মার্কেট নির্মাণের বিষয়ে জনগণ জানতে চায়।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More