গাইবান্ধা নাগরিক মঞ্চের উদ্যোগে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

বালাসী-বাহাদুরাবাদ রুটে ফেরি সার্ভিস চালুর নামে ১৪৫ কোটি টাকা রাষ্ট্রীয় অর্থের অপচয় ও লুটপাট

গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ
বালাসী-বাহাদুরাবাদ রুটে ফেরি সার্ভিস চালুর নামে ১৪৫ কোটি টাকা রাষ্ট্রীয় অর্থের অপচয় ও লুটপাটের সাথে জড়িতদের বিচার ও ব্রহ্মপুত্র সেতু বাস্তবায়নের দাবিতে গতকাল সোমবার গাইবান্ধা নাগরিক মঞ্চের উদ্যোগে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে গাইবান্ধার বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী ও বালাসীঘাট এলাকার জনসাধারণ উপস্থিত ছিলেন।
বালাসীঘাট সড়কে নাগরিক মঞ্চের সিনিয়র সদস্য ওয়াজিউর রহমান রাফেলের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জেলা সভাপতি মিহির ঘোষ, জেলা জাসদের সভাপতি গোলাম মারুফ মনা, নাগরিক মঞ্চের সদস্য সচিব অ্যাড. সিরাজুল ইসলাম বাবু, ফুলছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান জিএম সেলিম পারভেজ, গণফোরামের সভাপতি ময়নুল ইসলাম রাজা, গাইবান্ধা দোকান মালিক সমিতির সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা মকসুদার রহমান শাহান, প্রবীণ সাংবাদিক এসকে মজিদ মুকুল, ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি প্রণব চৌধুরী খোকন, কৃষক শ্রমিক জনতালীগের সভাপতি মোস্তফা মনিরুজ্জামান, সাম্যবাদী আন্দোলনের জেলা আহবায়ক অ্যাড. নওশাদুজ্জামান, কঞ্চিপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান লিটন মিয়া, বাসদ (মার্কসবাদী)র কাজী আবু রাহেন শফিউল্যাহ, সামাজিক সংগ্রাম পরিষদের সদস্য সচিব জাহাঙ্গীর কবীর তনু, ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী)’র মৃণাল কান্তি বর্মণ, সাংবাদিক হেদায়েতুল ইসলাম বাবু, মানবাধিকার কর্মী অঞ্জলি রানী দেবী, যুব ইউনিয়ন নেতা রানু সরকার, মেহেদী হাসান বাবু প্রমুখ। সমাবেশ পরিচালনা করেন সাম্যবাদী আন্দোলনের জেলা সদস্য সচিব মনজুর আলম মিঠু।
বক্তারা বলেন বালাসিঘাট থেকে বাহাদুরাবাদঘাট পর্যন্ত ফেরি সার্ভিস চালুর জন্য বিআইডাবিøউটিএ ১৪৫ কোটি টাকা ব্যয়ে টার্মিনালসহ অবকাঠামো নির্মাণ করেছে। কিন্তু সম্প্রতি বিআইডাবিøউটিএর এক প্রতিবেদনে এই পথে আর ফেরি চালু করা সম্ভব নয় বলে উল্লেখ করা হয়। সম্ভাব্যতা যাচাই বাছাই ছাড়াই প্রকল্প বাস্তবায়ন করায় এই ফেরি রুটটি চালু করা সম্ভব হচ্ছে না বলে কর্তৃপক্ষ জানায়। বক্তারা প্রশ্ন তোলেন, এর জন্য দায়ী কে, কার বা কাদের স্বার্থে এই প্রকল্পটি গ্রহণ করা হয়েছিল?
বক্তারা এই বিপুল পরিমাণ রাষ্ট্রীয় অর্থ অপচয়ের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের শাস্তি ও দুর্নীতির উৎস খুঁজে বের করে শ্বেতপত্র প্রকাশের দাবি জানান। তারা বালাসিতে ব্রহ্মপুত্র সেতু বাস্তবায়নের আন্দোলনে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।
গাইবান্ধায় শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসব পালন
গাইবান্ধা প্রতিনিধি
গাইবান্ধা জেলা প্রশাসন ও পুজা উদযাপন পরিষদ, গাইবান্ধার সহযোগিতায় গতকাল সোমবার হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের আয়োজনে স্থানীয় কালেক্টরেট সম্মেলন কক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস এবং শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. সাদিকুর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. আবদুল মতিন। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম, হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট গাইবান্ধার সহকারি পরিচালক মো. হামিদুর রহমান, গাইবান্ধা প্রেসক্লাবের প্রধান উপদেষ্টা গোবিন্দলাল দাস, পুজা উদযাপন পরিষদের গাইবান্ধা জেলা সভাপতি রণজিৎ বকসী সূর্য্য, জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি পরেশ চন্দ্র সরকার, দৈনিক জনসংকেতের সম্পাদক দীপক কুমার পাল, দৈনিক সমকালের জেলা প্রতিনিধি উজ্জল চক্রবর্ত্তী, সদর উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সুজন প্রসাদ, পুরোহিত কল্যাণ পরিষদের উপদেষ্টা কালিপদ মূখার্জী প্রমুখ। পরে প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More