শিরোনাম

কোস্ট ট্রাস্ট এবং আভাস এর নির্বাহীর সাথে কথা বললেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

Spread the love

ঢাকা: বাংলাদেশ সরকারের আয়োজনে ৯ ও ১০ জুলাই ২০১৯ তারিখে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হল গ্লোবাল কমিশন অন এডাপটেশনের বৈঠক। জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুনের সভাপতিত্বে অংশ নেন বিশ্বব্যাংকের নির্বাহি পরিচালক ক্রিস্টালিনা গিয়র্গিয়েভা এবং মারশাল আইল্যান্ডসের সভাপতি হিলডা হেইনে। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে হোটেল ইন্টার-কনটিনেন্টালে যৌথভাবে এ সভার আয়োজন করে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়। সভাস্থলে উপকূলীয় মানুষের জলবায়ু অভিযোজনের বিভিন্ন দিক বিশ্বনেতৃবৃন্দের সামনে তুলে ধরার জন্য সরকারের আমন্ত্রণে কোস্ট ট্রাস্টের নেতৃত্বে বরিশালের আভাস, খুলনার এওএসইডি, জাগ্রত যুব সংঘ ও সুশীলনের কর্মকর্তাগণ একটি স্টল স্থাপন করে।

১০ জুলায় সকালে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আগে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উক্ত স্টল পরিদর্শন করেন এবং কোস্ট ট্রাস্টের নির্বাহী পরিচালক রেজাউল করিম চৌধুরীর সঙ্গে কথা বলেন। রেজাউল করিম চৌধুরী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে বলেন, ২০১০ সালে গৃহীত তার নীতির কারণে আজ বাংলাদেশে ১৮টি কমিউনিটি রেডিও বাংলাদেশে দৈনিক প্রায় ৬০ ঘন্টা করে জলবায়ু অভিযোজন ও জীবিকা বিষয়ে তথ্য ও বিনোদন সেবা প্রদান করছে এবং এর মধ্যে রয়েছে ৮টি উপকূলীয় কমিউনিটি রেডিও। রেজাউল করিম চৌধুরী প্রধানমন্ত্রীর কাছে সম্মুখসারিতে স্থানীয়ভাবে কর্মরত বেসরকারী সংস্থাগুলোর জন্য সরকারি নীতি সহায়তার প্রয়োজনীয়তার কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের ছোট ছোট বেসরকারি সংস্থাসমূহের উদ্যোগের প্রশংসা করেন। এসময় আভাসের নির্বাহী প্রধান রহিমা সুলতানা কাজল ও এওএসইডি-র শামীম হোসেন উপস্থিত ছিলেন।
আভাস এর নির্বাহী প্রধান রহিমা সুলতানা কাজল কুয়াকাটা অঞ্চলের জন্য ১টি কমিউনিটি রেডিও স্থাপনের দাবী তোলেন।
১০ জুলাই ২০১৯ সকালে বান কি মুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অধিবেশনে বক্তব্য রাখেন কোস্ট ট্রাস্টের ভোলা আঞ্চলিক টিম লিডার রাশিদা বেগম। তিনি ভোলার মতো বিচ্ছিন্ন ও দূরবর্তী চরাঞ্চলের মানুষের জীবনের অনিশ্চয়তা ও দ্বান্দ্বিকতা তুলে ধরে বলেন, বাংলাদেশের একশত বছরের ডেল্টা পরিকল্পনায় উপকূলের প্রান্তিক মানুষের আরো বেশি অংশগ্রহন দরকার এবং বিদেশি সহায়তাও দরকার।
ঐদিন বিকালে কক্সবাজারের খুরুশকুল আশ্রয়ন প্রকল্প বিষয়ে উপস্থাপন করতে গিয়ে যুগ্ম সচিব মাহবুব হোসাইন বলেন, এটি কুতুবদিয়া দ্বিপ থেকে আসা জলবায়ু তাড়িত মানুষদের জন্য যারা বর্তমানে কক্সবাজার শহরের কুতুবদিয়াপাড়ায় অবস্থান করছেন।
কোস্ট ট্রাস্টের নির্বাহী পরিচালক এক অধিবেশনে তার উপস্থাপনায় এই নেপথ্য তথ্যের পাশাপাশি তুলে ধরেন জলবায়ু উদ্বাস্তু ও জলবায়ু বিষয়ক চুক্তি সংক্রান্ত বৈশ্বিক নীতিসমূহ, জাতিসংঘের শরণার্থি ও উদ্বাস্তু বিষয়ক গ্লোবাল কমপ্যাক্ট এবং রাষ্ট্রসমূহ পরিচালিত প্লাটফরম ফর ডিজাস্টার ডিসপ্লেসমেন্ট ইত্যাদি মানবাধিকার নীতিসমূহের কথা। এ অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ এবং পরিচালনা করেন অতিরিক্ত সচিব মনজুরুল হান্নান খান।
উল্লেখ্য যে, কোস্ট ট্রাস্ট ও অন্যান্য স্থানীয় বেসরকারি সংগঠনগুলো সরকারের সাথে ইতিবাচক সম্পৃক্ততায় বিশ্বাসি এবং তারা আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রেও সরকারের সাথে ইতিবাচক সম্পর্ক রেখে কাজ করে থাকেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *