কেরানীগঞ্জে “স্বাস্থ্যনীড়” বাংলাদেশ মেডিকেল স্টুডেন্ট সোসাইটির এক মানবিক উদ্যোগ

 

মাসুদ রানাঃ বাংলাদেশ মেডিকেল স্টুডেন্ট সোসাইটি (বিএমএসএস) এর বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ (বিএমসি) লোকাল কমিটির স্ট্যান্ডিং কমিটি অফ পাবলিক হেলথ ও দ্যা রোটারী ক্লাব বাংলাদেশ এর সম্মিলিত উদ্যোগে গত ২৪ সেপ্টেম্বর , কান্দাপাড়া, কেরানীগঞ্জে আয়োজিত হয়েছে স্বাস্থ্য ক্যাম্প- “স্বাস্থ্যনীড়: Your Health Is Our Priority
একটি জাতি, সমাজ, রাষ্ট্র গঠন ও এর সার্বিক কল্যাণ নিশ্চিতকরণে সবচাইতে প্রয়োজনীয় অংশ জাতির পরিপূর্ণ সুস্থতা,সুরক্ষা ও স্বাস্থ্যবিধি পালন। ” স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল”- এ প্রবাদটির সাথে আমরা পরিচিত হলেও সুস্বাস্থ্য গঠনে খুব কম সংখ্যক লোকই সচেতন। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে বেশিরভাগ মানুষ নিজেদের রোগ সম্পর্কে সচেতন নন; বরং তারা মনে করেন রোগ হলেই ডাক্তারের কাছে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। এই সামান্য অসচেতনতাই একজন মানুষকে নিয়ে যেতে পারে কঠিনতর রোগের দিকে, যার পরিণতি কখনো কখনো মৃত্যু। অনেকে অর্থনৈতিক কারণেও চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত। এ সকল কারণে ঝুঁকির মুখে পড়ে পরিবার , সমাজ ও দেশ – যা ক্ষতিসাধন করে একটি দেশের স্বাস্থ্যব্যবস্থাকে। দুর্বল স্বাস্থ্যসেবা অবকাঠামোগত উন্নয়নেও প্রধান অন্তরায়।

এ সকল দিন বিবেচনায় এ স্বাস্থ্য ক্যাম্পের মূল উদ্দেশ্য ছিল সাধারণত মানুষ এর সাথে নিজেদের একাত্মতা প্রকাশ, স্বাস্থ্য সম্পর্কিত ধারণা প্রদান এবং নিজেদের সমস্যাগুলো তুলে ধরা যাতে করে তারা সার্বিক চিকিৎসা সুবিধা পেতে পারেন। এ স্বাস্থ্য ক্যাম্পের অংশ হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সম্মানিত ডাক্তারবৃন্দ যারা নিজেদের মূল্যবান সময় অতিবাহিত করেছেন সুস্বাস্থ্য নিশ্চিতকরণ, সঠিক চিকিৎসা ও দিকনির্দেশনা প্রদানে।

এ কার্যক্রম এর অংশ হিসাবে সংযোজিত ছিল বিনামূল্যে মেডিকেল ও ডেন্টাল চেকআপ, উচ্চরক্তচাপ ও রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ নির্ণয় ,বিনামূল্যে ওষুধ ও মাস্ক বিতরণ এবং জনগোষ্ঠীর মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি।

এই স্বাস্থ্য ক্যাম্পে প্রায় ১৫০ জন মানুষ অংশগ্রহণ করেন এবং নিজেদের সমস্যা গুলো তুলে ধরেন। এই স্বাস্থ্য ক্যাম্পের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ও আয়োজক এর ভূমিকায় ছিল “দ্য রোটারী ক্লাব বাংলাদেশ ” । এছাড়াও এতে অংশগ্রহণ করেন স্বেচ্ছাসেবক দল যাদের সহযোগিতা ও সুন্দর উপস্থাপনায় এই ক্যাম্পটি চূড়ান্তভাবে সাফল্যমণ্ডিত হয়। বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ স্টুডেন্ট সোসাইটি আশা করে তাদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস কিছুটা হলেও স্বাস্থ্য সম্পর্কিত জ্ঞান অর্জনে অণুপ্রেরণা দিয়েছে এবং দেশের কল্যাণে অবদান রাখতে সক্ষম হয়েছে।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More