উখিয়ায় ব্রেইন টিউমারে আক্রান্ত স্কুলছাত্রী টুম্পা বাঁচতে চাই, বিত্তবানদের সহায়তায়



নিজস্ব প্রতিবেদক,উখিয়া,কক্সবাজারঃ

আপনার মানবিক সহায়তায় বাঁচতে পারে একটি শিশুর প্রান।সুস্থ্য স্বাভাবিক জীবন পেতে অপলক মায়াবী চাহনী যে কারো মনে ক্ষত লাগবে।যার কথায় বলা হলো তার নাম টুম্পা।পুরো নাম সামিয়া আলম টুম্পা।কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার হলদিয়াপালং ইউনিয়নের সাবেক রুমখাঁ এলাকার কাঠমিস্ত্রী আব্দুল আলমের মেয়ে। বাড়ির নিকটস্থ সাবেক রুমখাঁ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ুয়া টুম্পা ব্রেইন টিউমারে আক্রান্ত হয়ে বর্তমানে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। কক্সবাজারে চিকিৎসার পর বর্তমানে ঢাকা নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

৮ বছর বয়সী টুম্পার অপারেশনের জন্য ৩লাখ টাকা প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন তার বাবা আব্দুল আলম। যা পরিবারের পক্ষে সম্ভব নয়।গুরুতর অসুস্থ্য টুম্পাকে বাঁচাতে সমাজের সকল শ্রেণীপেশার মানুষকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন তার পরিবার।

স্বেচ্ছাসেবী ও রক্তদাতা সংগঠন হাসি মুখ ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক জানান,আমরা স্বেচ্ছায় মানবিক দিক বিবেচনায় গুরুতর অসুস্থ্য তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রী টুম্পার পাশে থাকার চেষ্টা করছি। সবাইকে আর্থিক সহায়তায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তারা।

টুম্পার বাবা জানান,দীর্ঘদিন কক্সবাজারে চিকিৎসার পর অবস্থার অবনতি হওয়ায় অপারেশনের জন্য ঢাকা নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। যার আর্থিক খরচ বহন পরিবারের একার পক্ষে সম্ভব নয়। তাই সবাইকে শিশু টুম্পার পাশে থাকার আকুল আবেদন জানিয়েছেন তিনি।

সাবেক রুমখাঁ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছৈয়দ আলম জানান,টুম্পা এই স্কুলের তৃতীয় শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী ছিলেন। গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়ায় দীর্ঘদিন স্কুলে আসেনি। টুম্পা যেনো সুস্থ্য হয়ে আবারো স্কুলে ফিরে আসে সেজন্য সবাইকে স্ব-স্ব অবস্থান থেকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

সমাজের অসহায় হতদরিদ্র পরিবারের পাশে থেকে যারা স্বেচ্ছায় সহায়তা করবেন,তারা নিম্ন নাম্বারে যোগাযোগ করুন।

01880 69 55 49/০১৮৮০ ৬৯ ৫৫ ৪৯(বিকাশ পার্সোনাল) টুম্পার বাবা।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More