শিরোনাম

আবারো জয়ী মিশা-জায়েদ প্যানেল, গড়লেন ইতিহাস।

Spread the love

এম.আর.জে শান্ত, বিনোদন প্রতিবেদক: টানা দ্বিতীয়বারের মতো বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সভাপতি নির্বাচিত হলেন মিশা সওদাগর এবং সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান। দ্বিতীয়বারের মতো মিশা-জায়েদের জয়ের মাধ্যমে শিল্পী সমিতির ইতিহাসে প্রথমবার পুরো প্যানেল নির্বাচিত হয়েছে।

এবারের নির্বাচনে মোট ভোটার ৪৪৯। সম্পাদকীয় পদে প্রাপ্ত ভোট ৩৮৬, বৈধ ব্যালট-৩৫২, বাতিল ব্যালট-৩৪।
সভাপতি মিশা সওদাগর ২২৭ ভোট পেয়ে জয়লাভ করছেন তার প্রতিদ্বন্দ্বী মৌসুমি ১২৫ ভােট পেয়েছেন।
সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান পেয়েছেন ২৮৪ ভোট পেয়েছেন তার প্রতিদ্বন্দ্বী ইলিয়াস কোবরা পেয়েছেন ৬৮ ভোট।

এ ছাড়া সহ-সভাপতির পদে মনোয়ার হোসেন ডিপজল ৩১১ ভোট, ও রুবেল ২৯৩ ভোটে নির্বাচিত হন, পরাজিত প্রার্থী নানা শাহ পেয়েছেন ৯৮ ভোট। সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে আরমান ২৮১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত, তার বিপরীতে সাংকু পাঞ্জা ৭১ ভোট পেয়ে পরাজিত, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে সুব্রত, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পদে চিত্রনায়ক ইমন, দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক পদে জ্যাকি আলমগীর, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক পদে জাকির হোসেন, কোষাধ্যক্ষ পদে ফরহাদ নির্বাচিত হয়েছেন। পাশাপাশি, সুব্রত, জ্যাকি আলমগীর এবং ফরহাদ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

কার্যকরি পরিষদ সদস্যের ১১টি পদের জন্য প্রার্থী হয়েছিলেন ১৪ জন। এর মধ্যে নির্বাচিত হয়েছেন অঞ্জনা সুলতানা, রোজিনা, অরুণা বিশ্বাস, আলীরাজ, আফজাল শরীফ, বাপ্পারাজ, আসিফ ইকবাল, আলেকজান্ডার বো, জেসমিন, জয় চৌধুরী ও মারুফ।

নির্বাচিত হওয়ার পর গণমাধ্যমকে মিশা শওদাগর বলেন, ‘সবাই আমাদের যোগ্য মনে করেছেন তাই আবারও ভোট দিয়ে জিতিয়েছেন। সবার দোয়া ও ভালোবাসায় চাই যেন তাদের জন্য কাজ করতে পারি। চলচ্চিত্রের সব শিল্পী, কলাকুশলীসহ এফডিসির সবার কাছে আমি কৃতজ্ঞ। জয়ী হওয়ার পরই আমার প্রথম কাজ হবে ইশেতেহারে যা যা বলেছিলাম তার বাস্তবায়ন ঘটানো। শিল্পীদের সবাইকে নিয়ে চলচ্চিত্রের উন্নয়নে কাজ করে যাব। গতবার আমাদের যে কাজগুলো করা হয়নি সেগুলো এবার পূরণ করবো।

সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান বলেন, ‘চলচ্চিত্র শিল্পীরা যাতে সম্মানের সঙ্গে মাথা উঁচু করে বাঁচতে পারে, আমরা সেই ব্যবস্থা করব। শিল্পীরা কেউ হারেনি। আমরা আগামীতে যেন বিগত বছরের কাজের গতিটা ধরে রাখতে পারি সবার কাছে এই দোয়াই চাই। শিল্পী সমিতির সব ভোটারদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। তারা আমাদের প্যানেলকে ভালোবেসে ও বিশ্বাস করে আবারও ভোট দিয়ে জয়ী করেছেন। এবার আমাদের উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাওয়ার পালা।

গতকাল (২৫ অক্টোবর) শুক্রবার সকাল ৯টায় নতুন নেতৃত্ব বাছাই করতে উৎসব মুখর পরিবেশে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে,শেষ হয় বিকাল ৫:.২৬ মিনিটে। রাত ২ টায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার ইলিয়াস কাঞ্চন ফলাফল ঘোষণা করেন। নির্বাচিতরা ২০১৯-২০২১ মেয়াদে দায়িত্ব পালন করবেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *